Home » জাতীয় » অতীত-জামিমা ইসলাম

অতীত-জামিমা ইসলাম

(শেষ অংশ)

ইফা এবার ঘামতে শুরু করেছে।ওর মধ্যে একটা অচেনা অস্থিরতা ভর করেছে।আমি বললাম,“উই উইল ডোন্ট ওয়ান্ট টু ডিসটার্ব ইউ।উই ওয়ান্ট টু আস্ক ইউ সাম কোস্বেনস।প্লিস আনসার আস,প্লিস।

ইফা আরও ভয় পেয়ে গেল।ধোয়ায় তার প্রচন্ড কাশি হচ্ছে।পচা আলুর গন্ধে তার বমি পাচ্ছে।ইফার মনে হচ্ছেএই বুঝি নিলিনার আত্মা এসে ওর গলা চেপে ধরল।ওর মধ্যেকার অস্থিরতা আরও বেড়ে গেল।হঠাৎ ওর বুকের বাদিকে প্রচন্ড ব্যথা শুরু হলো।সবাই প্লানচেটে মগ্ন ছিল, তাই কেউ ওর ছোট আর্তনাদ শুনতে পেল

না।কিন্তু ব্যথা যখন বাড়লো তখন ইফা জোরে একটা চিৎকার করে নিশ্চুপ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ল।শুনতে পেয়ে আমরা তাড়াতাড়ি বাতি জ্বালালাম।আমি বললাম,“ওঠ আর ভয়ের কিছু নেই।আমরা তো শুধু নাটক করছিলাম।”রাইসা টেবিল থেকে এক গ্লাস পানি নিয়ে এলো।ঋতু ইফার মুখে পানি ছিটিয়ে দিয়ে বলল,“কী হলো ?ওঠ।”

অবস্থা ভালো না দেখে তানহা অ্যাম্বুলেন্স ডাকলো।ইফাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলো।জানা গেল ইফা হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছে।আমরা বুঝতেও পারিনি যে এই নাটকটা ইফার জন্য এতটা ভয়ঙ্কর হবে।আসলে পুরো দোষটা আমার।আমিই তো প্লানটা বানিয়েছিলাম।জীবনের সবচেয়ে বিভীষিকাময় প্লান।আমি এখন ক্লাস নাইনে পড়ি।সেদিনের সেই ঘটনার জন্য আমি এখনো নিজেকে ক্ষমা করতে পারিনি।জানিনা ইফা কোনোদিন আমাকে ক্ষমা করবে কিনা।

(সমাপ্ত)

0 Shares