Home » জাতীয় » অনিয়মে নাজেহাল রোগীরা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে

অনিয়মে নাজেহাল রোগীরা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে

 

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নানামুখী সমস্যায় রোগীরা হয়রানি ও ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। দূর-দূরান্ত থেকে আসা রোগীরা প্রতিনিয়ত ইন্টার্ন চিকিৎসকদের হাতে শারীরিক ও মানসিকভাবে নাজেহাল হচ্ছেন।

জিম্মি হয়ে পড়েছেন জেলার ২৫ লাখ মানুষ। তাদের রোষানলে পড়ে সঠিক সময়ে চিকিৎসা না পেয়ে অকালে ঝরছে অহরহ প্রাণ বলে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ‘আমরা কক্সবাজারবাসী’র ব্যানারে হয়েছে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন। কিন্তু তার পরও কোনো সমাধান দিতে পারছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সূত্রমতে, মূলত ইন্টার্ন চিকিৎসকদের হাতে চিকিৎসাসেবা ছেড়ে দেয়ার কারণে প্রতিনিয়ত নানা অঘটন লেগেই রয়েছে।

প্রতিদিন কাক ডাকা ভোর থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত সেবাটিকে বাণিজ্য হিসেবে কাজে লাগিয়ে যাচ্ছেন তারা। আর এসব অপকর্মে শক্তি হিসেবে জোগানও দিচ্ছেন বেশ কয়েকজন অসাধু চিকিৎসক। যারা মূলত তাদের দিয়ে নানা অপকর্ম করিয়ে ফায়দা লুটছেন। সরেজমিন হাসপাতালে গিয়ে দেখা মিলে অসহায় গরিব রোগীদের ভোগান্তির আহাজারি।

হাসপাতালের ৫ম তালায় পুরুষ ওয়ার্ডের সিটে, মেঝেতে এবং চিকিৎসকদের অপেক্ষায় হাতে চিকিৎসাসেবার ফাইল নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন অহরহ রোগী। কিন্তু ওই সময় চিকিৎসক নামক ইন্টার্ন ডাক্তাররা আড্ডাবাজিতে ব্যস্ত থাকেন বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির এমআরদের সঙ্গে।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, সরকারিভাবে প্রতি রবি ও বুধবার বেলঅ ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত ওষুধ কোম্পানির এমআরদের ভিজিট করার নিয়ম আছে। তবে তা রোগী বাদ দিয়ে নয়। কিন্তু দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এমআরদের সঙ্গে আড্ডাবাজির প্রমাণ মিললে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অতীতে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের নানা অপকর্ম নিয়ে আমরা কক্সবাজারবাসীর ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন হলেও এর কোনো প্রতিকার হয়নি কেন জানতে চাইলে, এড়িয়ে যান তত্ত্বাবধায়ক।

নিউটার্ন.কম/AR

0 Shares