Home » জাতীয় » আ’লীগ নেতাকে হত্যার ৫ ঘন্টা পর কাউন্সিলর প্রার্থীর লাশ উদ্ধার
আ’লীগ নেতাকে হত্যার ৫ ঘন্টা পর কাউন্সিলর প্রার্থীর লাশ উদ্ধার

আ’লীগ নেতাকে হত্যার ৫ ঘন্টা পর কাউন্সিলর প্রার্থীর লাশ উদ্ধার

ঝিনাইদহ সংবাদদাতাঃ

ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে নির্বাচনী সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে। ৫ ঘন্টার ব্যবধানে এক কাউন্সিলর প্রার্থীর লাশ উদ্ধার ও অপর প্রতিদ্বন্দি কাউন্সিলর প্রার্থীর ভাই নিহত হওয়ায় আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। পাল্টাপাল্টি ঘটনা সংঘটিত হওয়ায় ভোটারদের মধ্যে উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। নির্বাচন কমিশন একটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের ভোট স্থগিত করেছে। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুনঃ কাউনিয়া উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা

দেশে গনতন্ত্র আছে বলেই এই মত পার্থক্য প্রকাশ্যে আলোচনা হয়েছে-এলজিআরডি মন্ত্রী

পুলিশ ও এলাকাবাসি সুত্রে জানা গেছে, ভোটের দুই দিন আগে বুধবার দিবাগত রাতে প্রার্থীসহ দুই জন নিহত হন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে শৈলকুপার কবিরপুর এলাকায় ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেনের ভাই আওয়ামীলীগের উমেদপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ডিস ব্যবসায়ী লিয়াকত হোসেন বল্টু (৫০) ছুরিকাঘাতে নিহত হন। তিনি শৈলকুপা উপজেলার ষষ্টিবার গ্রামের মৃত মসলেম উদ্দীনের ছেলে। বল্টু পৌর এলাকার কবিরপুর এলাকায় প্রচারনা চালাতে গিয়ে ছুরিকাঘাতের শিকার হন।

প্রতিদ্বন্দ্বী পাঞ্জাবী প্রতিকের কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর হোসেন বাবুর সমর্থক বাপ্পির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী বল্টু ও তার ভাই শওকতকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় বল্টুকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি মারা যান। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শৈলকুপা পৌর এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনার পর রাতেই নিহত বল্টুর উপর হামলাকারী কবিরপুর গ্রামের সামছুদ্দিনের ছেলে বাপ্পি (৩০) অজ্ঞাত ব্যক্তির হাতে আহত হয়ে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে আসে।

 

 

 

 

 

0 Shares