Home » Uncategorized » গলাচিপায় মুজিব জন্ম শত বর্ষে ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘর- জমি প্রদান
গলাচিপায় মুজিব জন্ম শত বর্ষে ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘর- জমি প্রদান
গলাচিপায় মুজিব জন্ম শত বর্ষে ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘর- জমি প্রদান

গলাচিপায় মুজিব জন্ম শত বর্ষে ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘর- জমি প্রদান

 

 

মু. জিল্লুর রহমান জুয়েল, গলাচিপা, (পটুয়াখালী) :

“আশ্রয়ণের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার’ বাংলাদেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না”
প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা, এই শ্লোগানে সারা দেশের ন্যায় পটুয়াখালীর গলাচিপার ২৩ জানুয়ারি শনিবার সকাল ১০ টায় উপজেলা পরিষদ মিলনয়াতনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান আশ্রয়ণ প্রকল্প শুভ উদ্বোধন করেন।

আরও পড়ুন :

৫০ ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারের হাতে বাড়ির চাবি

মুজিববর্ষে সুনামগঞ্জে ৪০৭ দরিদ্র গৃহহীন পরিবার পেল ঘর

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেণ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশিষ কুমার। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শাহিন শাহ, বিশেষ অতিথি জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি এডিসি জেনারেল সার্বিক মো. হুমায়ুন কবির, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক সন্তোষ কুমার দে, গলাচিপা পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. নিজাম উদ্দিন মোল্লা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া নিতু, গলাচিপা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুল ইসলাম, গলাচিপা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. হারুন-অর রশিদ, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম মোস্তফা, সকল ইউপি চেয়ারম্যান, গলাচিপা প্রেসক্লাব সভাপতি খালিদ হোসেন মিলটনসহ উপজেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তা ও প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।

প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় ভাবে, গৃহহীনদের আনুষ্ঠানিক ভাবে গৃহ ও জমির দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রশাসন জনপ্রতিনিধিদের সম্মিলিত
প্রয়াসে সকলে দেশের উন্নয়নে ও মানুষের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানান।
বিশেষ অতিথি জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি এডিসি জেনারেল সার্বিক মো. হুমায়ুন কবির বলেন, গৃহহীনদের ঘর ও জমি বরাদ্দ বিষয়ে কোন অনিয়ম দুর্নীতি থাকলে তা যথাযথ প্রমাণাদিসহ প্রশাসনকে অবহিত করার অনুরোধ করেন এবং তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতি বলেন, আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে এই উপজেলায় ৩শত ৯৩টি গৃহ ও কবুলিয়ত হস্তান্তর করা হবে এবং উদ্বোধনী
অনুষ্ঠানে ১০টি পরিবারকে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়। এই প্রকল্পের ব্যয় ৬ কোটি ৭২ লক্ষ ৩ হাজার টাকা বরাদ্দ এবং প্রতিটি ঘরের পরিবহণ বাবদ মোট ১৫লক্ষ ৭২ হাজর টাকাসহ প্রতিটি ঘরের নির্মাণ মূল্য ১ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়
করা হবে। তিনি গৃহহীন আশ্রয়হীন মানুষের কল্যাণে প্রধানমন্ত্রীর এই প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য সকলের সহযোগিতা চেয়ে উপস্থিত সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানান এবং তার দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

0 Shares