Home » আন্তর্জাতিক » চাঁদ এবং মঙ্গলেও থাকা সম্ভব, সেখানে ফলতে পারে ফসল, বলছে নাসার বিজ্ঞানীরা !

চাঁদ এবং মঙ্গলেও থাকা সম্ভব, সেখানে ফলতে পারে ফসল, বলছে নাসার বিজ্ঞানীরা !

 

আর এখানকার ক্ষেতখামার নয়, মঙ্গল আর চাঁদেও এবার ফসল ফলতে পারে। নাসার বিজ্ঞানীরা ইতিমধ্যেই মঙ্গলে ফসল ফলিয়েছেন। চাঁদের যাতে ফসল চাষ হয়, সে জন্য মাটি তৈরির উপাদানও প্রস্তুত করা হয়েছে। অর্থাৎ ভবিষ্যতে যদি পৃথিবী মানুষের বসবাসের অযোগ্য হয়ে যায়, তবে এই দুই গ্রহ, উপগ্রহে পাড়ি দিলে অন্তত না খেয়ে মরতে হবে না।

নেদারল্যান্ডসের ওয়াজেনিঙ্গেন ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড রিসার্চের গবেষকরা জানিয়েছেন, মঙ্গল ও চাঁদে ফলা ফসল থেকে শস্য উৎপাদনে সক্ষম বীজ পাওয়া সম্ভব। ১০ রকম শস্য চাষ করেছেন তাঁরা, এর মধ্যে রয়েছে বাগানে ফলা শাকসবজি, টম্যাটো, মুলো, রাই, পালংশাক, কুইনোয়া, পেঁয়াজজাতীয় ফসল ও মটরশুঁটি। গবেষকরা জানিয়েছেন, সংগৃহীত মাটিতে ফলা টম্যাটো যখন লালচে হতে শুরু করল, রোমাঞ্চিত হয়েছিলেন তাঁরা। অর্থাৎ লাল গ্রহে ফসল ফলানোর মত পরিবেশ তৈরি সম্ভব।

এই গবেষকরা পৃথিবীর সাধারণ মাটির চরিত্র অনুযায়ী চাঁদ ও মঙ্গলের মাটি তৈরি করেছেন। যে ১০টি শস্য তাঁরা ফলন করেছেন, সেগুলির মধ্যে ৯টিই ভালভাবে বেড়ে উঠেছে। একমাত্র ব্যতিক্রম পালং শাক। পৃথিবী ও মঙ্গলের মাটিতে বেড়ে ওঠা শস্যের প্রতি ট্রে পিছু যে উৎপাদন তা চাঁদের মাটিতে উৎপাদনের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন, তাঁরা বলেছেন।

আর এই সব শস্য থেকে মুলো, রাই ও বাগানে ফলা শাকের যে বীজ সংগৃহীত হয়, সেগুলি থেকে সফলভাবে অঙ্কুরোদগম হয়েছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে যদি মানুষকে কখনও চাঁদে বা মঙ্গলে বাসা বাঁধতে হয়, তবে তারা সহজেই প্রয়োজনীয় শস্য উৎপাদন করতে পারবে।

নিউটার্ন.কম/RJ

11 Shares