Home » আন্তর্জাতিক » জম্মু-কাশ্মীরে গোলাগুলি, নিহত ৩

জম্মু-কাশ্মীরে গোলাগুলি, নিহত ৩

 

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের ত্রাল এলাকায় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গে গোলাগুলিতে অন্তত তিনজনের প্রাণহানি ঘটেছে মঙ্গলবার ভারতীয় পুলিশ এই তথ্য জানিয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের পর অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির সংবাদে বলা হয়েছে, ত্রালে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গে এনকাউন্টারে তিনজন নিহত হয়েছে। স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তারা নিহত তিনজনকে পাকস্তিানভিত্তিক সন্ত্রাসী সংগঠন জয়েশ-ই-মোহাম্মদের সদস্য বলে দাবি করেছেন।

ভারতীয় নিরাপত্তা বাহীনির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ পুলাওয়ামা জেলায় অভিযান শুরু করে। সেখানে নিরাপত্তাবাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। পরে তিনজনের মরদেহ পাওয়া গেছে।

পুলিশের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নিহতদের পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জম্মু-কাশ্মিরে পোস্ট-পেইড মোবাইল পরিষেবা পুনরায় চালু হওয়ার এটি দ্বিতীয় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা। গত সপ্তাহে বিজবেহারা এলাকায় লস্কর-ই-তৈয়বার তিন সদস্য নিহত হয়েছিল।

কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার মধ্যেই এসব বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটছে। রোববার কাশ্মির সীমান্তে দুই পক্ষের গোলাগুলিতে প্রায় ডজনখানেক প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তাদের সাত জন এবং ভারতের পক্ষ থেকে তাদের তিন জন নিহতের খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাজৌরিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক জুনিয়র কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন পাকিস্তানি গোলাতে। পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গুলিতে অপর এক নারী আহত হয়েছেন বলেও জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

কাশ্মীর পুলিশের মহাপরিদর্শক দিলবাগ সিং বলেন, পাকিস্তানভিত্তিক সন্ত্রাসী সংগঠন জয়েশ-ই-মোহাম্মদের সদস্যদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যদের গোলাগুলি হয়েছে। ত্রালে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের সংঘর্ষে তিন সন্ত্রাসীর প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।

তিনি বলেন, এই সন্ত্রাসীরা গত মাসে কাশ্মীরের গুজ্জার সম্প্রদায়ের এক পরিবারের দুই সহোদরকে গুলি করে হত্যা করেছিল। গোলাগুলির সময় ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র এবং গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই এলাকায় জনগণের চলাচলে কড়াকড়ি আরোপ ও তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নিউটার্ন.কম/AR

23 Shares