Home » ধর্ম-কর্ম » জেনে নিন বিসমিল্লাহ পাঠ করার গুরুত্ব ও ফযিলত
bismillahi-rahmani-rahim

জেনে নিন বিসমিল্লাহ পাঠ করার গুরুত্ব ও ফযিলত

আমরা সবাই বিসমিল্লাহ বলে কাজ শুরু করতে হয় শিখেছি, কিন্তু কেন “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম” বলতে হবে? কি আছে বিসমিল্লাহ এর মাঝে? মুসলমান হিসেবে আমাদের তা জানা দরকার।

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম শব্দের অর্থ হল “পরম করুণাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি” কিন্তু এর মধ্যে লুকিয়ে থাকা তাৎপর্য ও গুরুত্ব আমারা সবাই জানি না। এর উপর জ্ঞান রাখা প্রত্যেক মুসলমানের কর্তব্য।

পবিত্র আল-কুরআনের ১১৪ টি সূরা আছে, এর মধ্যে একটি সূরা তওবা ব্যতিত অন্য বাকি ১১৩টি সূরা শুরু হয়েছে “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম” দিয়ে। এছাড়াও হাদীস থেকে জানা যায়, আমাদের প্রিয় মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:)”বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম” বলে প্রত্যেক কাজ শুরু করতেন। মূলত “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম” এর তাৎপর্য, গুরুত্ব ও ফযিলত অত্যন্ত গভীর।

আসুন সংক্ষেপে জেনে নেই বিসমিল্লাহ পাঠ করার গুরুত্ব ও ফযিলত।

বিসমিল্লাহ আল্লাহর প্রতি ভালবাসার প্রতীক।
বিসমিল্লাহ আল্লাহর প্রতি নির্ভরতার প্রতীক।
শয়তানকে তারানর হাতিয়ার বিসমিল্লাহ।
মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দেয় বিসমিল্লাহ।
বিসমিল্লাহ কর্মসমূহের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে।
পবিত্র কোরআনের সূরাগুলোর মুকুট হল বিসমিল্লাহ।
পুলসিরাত পার হওয়ার লাইসেন্স বিসমিল্লাহ ।
বিসমিল্লাহ জাহান্নামের আগুনের শিখাকে নিভিয়ে দেয়।
বিসমিল্লাহ ব্যাথা নিরাময় করে।
বিসমিল্লাহ সমস্যা সমাধানের চাবি।
বিসমিল্লাহ কুরআনের চাবি।
দোয়া কবুলের শর্ত হচ্ছে বিসমিল্লাহ।
প্রত্যেকটি আসমানি কিতাবের শুরুতে বিসমিল্লাহ আছে।
মানুষের মনকে আলকিত করে বিসমিল্লাহ।
বিসমিল্লাহ আত্মিক রোগ গুলো নিরাময় করে।
আল্লাহর দাসত্ব স্বীকার করার প্রতীক বিসমিল্লাহ।
আসমানের তালার চাবি হচ্ছে বিসমিল্লাহ।
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম
বিসমিল্লাহ বলে সব কাজ শুরু করবো কেন?

বিসমিল্লাহ বলে কোন কাজ শুরু করার অর্থ এই কথা মেনে নেয়া যে আল্লাহ ক্ষমতা না দিলে আমি কাজটি করতে পারতাম না। অর্থাৎ আল্লাহ অসীম ক্ষমতাবান তা স্বীকার করে নেয়া।

মহান রাব্বুল আলামিনকে খুশি করার জন্য আমরা বিসমিল্লাহ বলে কাজ শুরু করব।
বিসমিল্লাহ শব্দের মধ্যে আল্লাহ আছে, সুতরাং বিসমিল্লাহ বলা হলে আল্লাহর নাম সরণ করা হয়।
বিসমিল্লাহের মাধ্যমে আল্লাহর রাসুল (সাঃ) পবিত্র কুরআনের সুরাহসমুহ পার্থক্য করেছেন।
আমাদের নবী যেকোনো কাজ শুরু করার আগে বিসমিল্লাহ বলে শুরু করতেন।
বিসমিল্লাহ বলে কাজ শুরু করলে আল্লাহ তায়ালা সাহায্য করেন, কাজে ধৈর্য বেড়ে যায়, কাজে সফলতা আসে।
আসুন আমরা সবাই যেকোনো কাজ শুরু করার আগে বিসমিল্লাহ বলে শুরু করি, আল্লাহ আমাদের পাশে থাকবেন।

নিউটার্ন.কম/আর জে

8 Shares