Home » অর্থনীতি » টেকসই অর্থায়নের লক্ষ্যমাত্রা জানাতে হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে
টেকসই অর্থায়নের লক্ষ্যমাত্রা জানাতে হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে

টেকসই অর্থায়নের লক্ষ্যমাত্রা জানাতে হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে

নিউটার্ন ডেস্কঃ

পরিবেশবান্ধব ও টেকসই অর্থায়নের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে প্রতিবছর জানুয়ারি মাসের শেষ কার্যদিবসের মধ্যে জানাতে হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাসটেইনেবল ফাইন্যান্স ডিপার্টমেন্টকে। এজন্য, পরিবেশবান্ধব খাতে ব্যাংকগুলোকে ২ শতাংশ এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে মোট ঋণের ১৫ শতাংশ বিতরণ করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ বড় দরপতন পুঁজিবাজারে

নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে

মঙ্গলবার এ বিষয়ে একটি সার্কুলার জারি করে সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে বলা হয়, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে বছরের শুরুতেই পরিবেশ বান্ধব অর্থায়ন ও টেকসই অর্থায়নের (পরিবেশবান্ধব অর্থায়নসহ) বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রা যথাক্রমে অন্যূন ২ শতাংশ এবং ১৫ শতাংশ নির্ধারণ করতে হবে। এই লক্ষমাত্রা পূর্ববর্তী বছরের ডিসেম্বর ৩১ ভিত্তিক নিট বকেয়া ঋণ ও অগ্রিম স্থিতির (মোট বকেয়া ঋণ ও অগ্রিম স্থিতি থেকে কর্মচারী ঋণ ও মোট শ্রেণিকৃত ঋণ বাদ দিয়ে) ভিত্তিতে নির্ণীত হবে।

উল্লেখিত লক্ষ্যমাত্রা প্রতিবছর জানুয়ারির শেষ কর্মদিবসের মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে অবহিত করতে হবে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের পরিবেশবান্ধব অর্থায়নের অর্জনের হার তাদের বিতরণকৃত মোট মেয়াদী ঋণ-বিনিয়োগ (কর্মচারী ঋণ ব্যতিত) এর ভিত্তিতে বিবেচিত হবে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানওয়ারী এ হার অন্যূন ৫ শতাংশ অর্জন নিশ্চিত করতে হবে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের টেকসই অর্থায়নের (পরিবেশ বান্ধব অর্থায়নসহ) অর্জনের হার তাদের বিতরণকৃত মোট ঋণ-বিনিয়োগ (কর্মচারী ঋণ ব্যতিত) এর ভিত্তিতে বিবেচিত হবে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানওয়ারী এ হার অন্যূন ২০ শতাংশ অর্জন নিশ্চিত করতে হবে।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ পরিবেশ বান্ধব ও টেকসই পণ্য-প্রকল্প-উদ্যোগে অর্থায়নের মাধ্যমে বার্ষিক কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কার্যকরী ভূমিকা রাখবে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের গ্রিন ব্যাংকিং ও টেকসই অর্থায়ন (পরিবেশবান্ধব অর্থায়নসহ) কার্যক্রমের অর্জন তাদের ক্যামেলস রেটিং এবং সাসটেইনেবিলিটি রেটিং অব ব্যাংকস অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউটের মূল্যায়নে বিবেচিত হবে।

পরিবেশবান্ধব অর্থায়ন ও টেকসই অর্থায়ন (পরিবেশবান্ধব অর্থায়নসহ) ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে সকল তফসিলি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান তাদের অফিস-শাখাসমূহে হেল্প ডেস্ক স্থাপন এবং প্রধান কার্যালয়ের ‘সাসটেইনেবল ফাইন্যান্স ইউনিট’ এর কর্মপরিধির আলোকে ওই হেল্প ডেস্কর কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবে।

 

 

 

 

নিউটার্ন২৪/Rp

0 Shares