Home » জাতীয় » ডোবার ওপর করা ভবন ধসে পড়ে স্কুলছাত্র নিহত

ডোবার ওপর করা ভবন ধসে পড়ে স্কুলছাত্র নিহত

 

নারায়ণগঞ্জ শহরে নির্মাণাধীন একটি চারতলা ভবন ধসে এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ছয়জন। তাছাড়া এখনও এক শিশু নিখোঁজ রয়েছেন বলে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। ভবনটি মূলত ডোবার ওপর নির্মাণ করা হয়েছিলো।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ভবনটি নিমার্ণের আগে সেখানকার মানুষরা এ ব্যাপারে অনেকবার নিষেধ করেছিলেন। ভবনটি কোনো সয়েল টেস্ট কিংবা রাজউকের অনুমতি ছাড়াই গড়ে উঠেছিলো। তাছাড়া এটিতে পাইলিংও করা হয়নি।

স্থানীয়রা জানান, ভবনটি তিন তলা পর্যন্ত করার পর থেকেই লোড নিতে পারছিল না, কিন্তু সম্প্রতি ভবনটির চারতলার ছাদ ঢালাই দেয়া হয়। আর এ লোড নিতে না পেরে রোববার ধসে পড়ে ভবনটি। ভবনটির মালিক মৃত আব্দুর রউফ মিয়ার ৪ সন্তান। চার তলার মধ্যে তৃতীয় তলাতে আজহারউদ্দিন, দ্বিতীয় তলায় বোন শিউলি বেগম ও নিচ তলায় অপর দুই ভাই সুমন এবং বাবু থাকতো। সেখানে আরেকটি রুমে সোনিয়া নামের একজন ভাড়া থাকতেন। তিনি আরবী পড়াতেন।

নিহত শোয়েব (১২) উত্তর গোয়ালবন্দ এলাকার মৃত শাহাবউদ্দিনের ছেলে। সে সেখানকার সানরাইজ মডেল স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র।

শোয়েবের মা রোজিয়া জানান, শাহাবউদ্দিন সৌদি আরব প্রবাসী ছিলেন। সেখানে তিনি ব্যবসা করতেন। দুই বছর আগে সেখানেই তিনি মারা যান। তাদের আরেক মেয়ে আছে। তার বিয়ে হয়ে গেছে। সে কারণে ছেলে শোয়েবকে নিয়ে একাই বাসায় থাকতেন রোজিয়া।

তিনি আরো জানান, প্রতিদিন বিকেল ৩টায় বাসা থেকে বের হয়ে বাবুরাইলের ওই বাড়িতে পড়তে যেতেন শোয়েব। সে ভবনের নিচ তলায় সোনিয়া নামের এক নারীর কাছে আরবী শিখতেন। ফিরতেন বিকেল সাড়ে ৪টায়। কিন্তু রোববার বিকেল সোয়া ৪টায় খবর পান ভবন ধসের। পরে তার সন্তান ফেরে লাশ হয়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজহারউদ্দিনের এক মামাতো বোনের বিয়ে থাকার কারণে সবাই সেখানে চলে যান। ফলে পুরো ভবন ছিল মূলত ফাঁকা। তবে নিচ তলার ভাড়াটিয়া সোনিয়া বাসাতেই ছিল, আর বাসায় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর স্কুলছাত্র সোয়াইন হোসেন শোয়েব, ওয়াজিদ, স্বপ্নাসহ কয়েকজন বিকেলে আরবি পড়তে এসেছিল। আরবী পড়ার সময় হঠাৎই ভবনটি ধসে পড়ে।

নিউটার্ন.কম/AR

30 Shares