Home » আইন-আদালত » ঢাকা মহানগরীর ভাস্কর্যের নিরাপত্তা জোরদারে কমিশনারের নির্দেশ

ঢাকা মহানগরীর ভাস্কর্যের নিরাপত্তা জোরদারে কমিশনারের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নিউটার্ন.কম : ঢাকা মহানগরীতে যতগুলো ভাস্কর্য আছে সেগুলো যাতে কেউ বিনষ্ট করতে না পারে, সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে পুলিশ সদস্যদের নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। ভাস্কর্য রক্ষার্থে প্রয়োজনে সাদা পোশাকে নিরাপত্তা ও সিসিটিভির ব্যবস্থা করার কথা উল্লেখ করেছেন ডিএমপি কমিশনার।

আরও পড়ুন :

আওয়ামী লীগ সরকারে আছে বলেই দেশ স্বনির্ভর ও উন্নত হয়ে গড়ে উঠছে : প্রধানমন্ত্রী

বিএনপির মুখে নিরাপত্তাহীনতার কথায় মানুষ আতঙ্কিত : তথ্যমন্ত্রী

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে রাজারবাগ পুলিশ অডিটরিয়ামে ডিএমপির মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় এসব নির্দেশনা দেন তিনি। এসময় তিনি পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশে আরো বলেন, বিশ্বজুড়ে চলছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। এ সময় যতটা সম্ভব জনসমাগম এড়িয়ে সতর্কভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। আমাদের সামনে বড় দু’টি উৎসব রয়েছে। একটি বড়দিন ও আরেকটি থার্টি ফার্স্ট নাইট। এ দু’টি উৎসব উপলক্ষে সবাইকে সতর্কতার সঙ্গে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। কেউ যাতে কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সেদিকে বিশেষ নজরদারি রাখতে হবে।

ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারের উপ-কমিশনার ওয়ালিদ হোসেন জানান, গত মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিএমপির ৮টি ক্রাইম বিভাগের মধ্যে যৌথভাবে প্রথম হয়েছে মিরপুর ও গুলশান বিভাগ। ডিএমপির ক্রাইম বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনারদের (এসি) মধ্যে প্রথম হয়েছেন মিরপুর বিভাগের মিরপুর জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার এম এম মঈনুল ইসলাম। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) মধ্যে প্রথম হয়েছেন যাত্রাবাড়ী থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম। পুলিশ পরিদর্শক তদন্তদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন মিরপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সৈয়দ মোহাম্মদ আক্তার হোসেন। পুলিশ পরিদর্শক অপারেশনদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন কদমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জাকির হোসাইন। শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক (এসআই) যৌথভাবে নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদপুর থানার এসআই হাসানুর রহমান ও বাড্ডা থানার এসআই মোহাম্মদ হানিফ। শ্রেষ্ঠ সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) যৌথভাবে নির্বাচিত হয়েছেন মতিঝিল থানার এএসআই হেলাল উদ্দিন ও পল্লবী থানার এএসআই মো. জামাল হোসেন।

ডিএমপির নয়টি গোয়েন্দা বিভাগের মধ্যে প্রথম হয়েছে গোয়েন্দা গুলশান বিভাগ। শ্রেষ্ঠ টিম লিডার হয়েছেন গোয়েন্দা গুলশান বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মো. গোলাম সাকলায়েন, চোরাই গাড়ি উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার হয়েছেন গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মো. কায়সার রিজভী কোরায়েশী, অস্ত্র উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার হয়েছেন গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বদরুজ্জামান জিল্লু, মাদকদ্রব্য উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার হয়েছেন অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মো. গোলাম সাকলায়েন, অজ্ঞান/মলমপাটি গ্রেফতারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার হয়েছেন গোয়েন্দা রমনা বিভাগে অতিরিক্ত উপ-কমিশনার তরিকুর রহমান। ডিএমপির আটটি ট্রাফিক বিভাগের মধ্যে প্রথম হয়েছে ট্রাফিক লালবাগ বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হয়েছেন কোতোয়ালি ট্রাফিক জোন বিমান কুমার দাস, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হয়েছেন বাড্ডা ট্রাফিক জোনের ইন্সপেক্টর মো. সাজ্জাদ হোসেন, শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট যৌথভাবে ট্রাফিক সার্জেন্ট হয়েছেন শাহবাগ ট্রাফিক জোনের ট্রাফিক সার্জেন্ট জাফর ইমান ও ডেমরা ট্রাফিক জোনের ট্রাফিক সার্জেন্ট

নিউটার্ন.কম/এআর

0 Shares