Home » জাতীয় » দুলারহাটে চোর সন্দেহে যুবককে নির্যাতন

দুলারহাটে চোর সন্দেহে যুবককে নির্যাতন

ভোলা প্রতিনিধি :
চরফ্যাশনের উপজেলার দুলারহাটে চুরির অপবাদে শাহিন (৩৫) নামের এক যুবককে  নির্যাতনের করার অভিযোগ উঠেছে দুলারহাট বাজারের ব্যবসায়ী আবদুল কাদের ও তার ছেলে এরশাদ আলীর বিরুদ্ধে।
মঙ্গলবার(১৬ মার্চ) সকালে ঘোষেরহাট লঞ্চঘাট থেকে ওই যুবককে সুপারী চুরির অপবাধ দিয়ে আটক করে দুলারহাট বাজারে এনে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের পরপরই নির্যাতনকারী এম এইচ এরশাদ তার ফেইসবকু আইডি থেকে হাতপা বাঁধা একটি ছবি পোস্ট করলে মুহূর্তের মধ্যেই ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপার শুরু হয়। ছবিতে দেখা যায় ওই যুবককে নির্যাতনের পর হাত পা বেঁধে বুকে প্লেকার্ড ঝুলিয়ে রোদে শুইয়ে রাখা হয়েছে। এই সংবাদ লেখা পর্যান্ত ওই যুবককের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।
জানা যায়,পটুয়াখালী জেলার বাউফল থানার ওই যুবক শাহিন দুলারহাটে বেড়াতে আসেন। সকালে দুলারহাট বাজারের মেসার্স হাসান ব্রাদার্সের মালিক আবদুল কাদের ও তার ছেলে এরশাদ আলী ওই যুবক শাহিনকে ঘোষের হাট লঞ্চঘাট থেকে ধরে এনে চোর অপবাদ দিয়ে তাকে হাত পা বেধে নির্যাতন করেন। এবং থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ না করে ওই যুবককে সকাল থেকে বিকাল পর্যান্ত আটকে রাখেন। বিকাল সাড়ে ৫ টায় এসংবাদ লেখা পর্যান্ত এখনও ওই যুবককে থানায় সোপর্দ করা হয়নি।
নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, সকালে দোকান থেকে সুপারী চুরি করায় তাকে হাত পা বেঁধে রাখা হয়েছে।
দুলারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোরাদ হোসেন বলেন, বিষয়টি স্থানীয় সংবাদকর্মিদের কাছ থেকে শুনেছি। তবে ওই যুবককে থানায় সোপর্দ করা হয়নি।r

0 Shares