Home » আন্তর্জাতিক » নিজের বিয়ে ঠেকাতে মন্ত্রীর বাসভবনে কিশোরী!

নিজের বিয়ে ঠেকাতে মন্ত্রীর বাসভবনে কিশোরী!

 

নিজের বিয়ে ঠেকাতে সোজা মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে ছুটে গেছে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী। পরে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের হস্তক্ষেপে অল্পবয়সে বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে মেয়েটি। মুখমন্ত্রী কেবল তার বাল্যবিয়েই বন্ধ করেননি, তার লেখাপড়ার যাবতীয় ব্যয় বহনের কথাও জানিয়েছে।

জানা যায়, সোমবার ভারতের রাজস্থান রাজ্যের মুখমন্ত্রী গহলট তার সরকারি বাসভবনে বৈঠক করছিলেন। এ সময় ১৫ বছরের ওই মেয়েটি তার এক চাচাকে নিয়ে সেখানে ছুটে যান। মুখ্যমন্ত্রী গেহলট বৈঠক রেখে মেয়েটির কথা শুনতে চান। মেয়েটি তাকে বলেন, তার মা মারা গেছেন অল্পবয়সে। এখন তার বাবা এই বয়সেই তাকে জোরপূর্বক বিয়ে দিতে চাইছেন। কিন্তু এত অল্প বয়সে বিয়ে করতে চায় না মেয়েটি। তার ইচ্ছা আরো পড়াশোনা করে নিজের পায়ে দাঁড়াবে সে।

তখন মুখ্যমন্ত্রী ওই জেলার কালেক্টর ও পুলিশ কর্মকর্তাকে বিয়ে ঠেকাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন। শুধু তাই নয়, মেয়েটি যাতে ভবিষ্যতে লেখাপড়া শিখে নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে পারে সে বিষয়ে সহায়তা করারও অঙ্গীকার করেন। রাজস্থানের নারীদের জন্য চলমান ‘সারদা বালিকা রেসিডেন্টাল স্কুল স্কিম’য়ের আওতায় মেয়েটিকে প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তা দেয়ার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন।

এভাবে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে অকালে ঝড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পেলো একটি কিশোরীর শিক্ষা জীবন। মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক বিবৃতি থেকে বিষয়টি জানা যায়। সূত্র: গালফ নিউজ

নিউটার্ন.কম/RJ

41 Shares