Home » প্রধান খবর » নীলফামারীতে অগ্নিকাণ্ডে ৫৬টি ঘর পুড়ে ছাই

নীলফামারীতে অগ্নিকাণ্ডে ৫৬টি ঘর পুড়ে ছাই

 

নীলফামারীতে অগ্নিকাণ্ডে ৫৬টি ঘর পুড়ে ছাই নীলফামারী ॥
নিউটার্ন ডেস্ক নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় অগ্নিকাণ্ডে ১৮টি পরিবারের ৫৬টি ঘ
পুড়ে ছাই হয়েছে। আজ রবিবার ভোরে উপজেলার হরিণচড়া ইউনিয়নের পশ্চিম হরিণচড়া গ্রামে অগ্নিকান্ডের ওই ঘটনা ঘটে। ডোমার ও নীলফামারী সদরের দুইটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এতে ঘর, আসবাবপত্র, , ধান, চাল, নগদ অর্থসহ প্রায় কোটি টাকার সম্পদ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ছাড়া ২টি গরু ও ৬টি ছাগল ও তিন শতাধিক হাঁস মুরগী ও কবুতর অগ্নি দ্বগ্ধ হয়ে মারা গেছে।

হরিণচড়া ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম জানান, রবিবার ভোর রাতে পশ্চিম হরিণচড়া গ্রামের জিতেন চন্দ্রের রান্না ঘরে অগ্নিকান্ডের শুরু হয়ে দ্রুত আগুন চারিদিকে লেগে যায়। এতে জিতেন চন্দ্রের ৬টি ঘর, ২টি গরু ও ৬টি ছাগল, রিনা রানীর ২টি ঘর, বিশ^নাথ রায়ের ৬টি, গলিরাম রায়ের ৩টি, বিমল চন্দ্র রায়ের ৩টি, সুমন চন্দ্রের ৩টি, জগদ্বিস চন্দ্রের ৪টি, শুশিল চন্দ্রের ৩টি, লক্ষি কান্তের ৪টি ঘর ও ৩০ হাজার টাকা, সত্যেন চন্দ্রের ৩টি, হরি সংকরের ৪টি ঘর ও ৬০ হাজার টাকা, জয় দেবের ৫টি ঘর, সুমিত্রা রানীর ২টি, অনিল চন্দ্রের ২টি, অধির চন্দ্রের ২টি, জয় শংকরের ১টি, ডালিম ইসলামের ২টি ও লোক নাথের ১টিসহ মোট ৫৬টি ঘর, গরু-ছাগল, ধান, চাল নগদ অর্থসহ আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ডোমার ও নীলফামারী সদরের দুইটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

রবিবার সকাল ১১ টার দিকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে ফাতিমা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সরকারী ত্রান বিতরণ করে।

9 Shares