Home » প্রধান খবর » প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্পে মধ্যবিত্তের জীবনসংকট-২, জহিরুল ইসলাম

প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্পে মধ্যবিত্তের জীবনসংকট-২, জহিরুল ইসলাম

কল্লে­াল গোষ্ঠীর লেখকরা এসেছেন মধ্যবিত্ত শ্রেণি থেকে। এ সময়ের নতুন লেখকদের ছোটগল্পে মধ্যবিত্ত শ্রেণির ব্যক্তি ও শ্রেণিগত ভাবনা, পারিবারিক ও ব্যক্তিসংকট, পরিবেশ-প্রতিবেশের সঙ্গে দ্বন্দ¡ সংঘাত ও তার স্বদেশভাবনা সবকিছু উঠে এসেছে। বলা যায় একালের লেখকদের হাতে মধ্যবিত্তের জীবনের স্বরূপ প্রকৃতরূপে প্রাণ পায়। এক্ষেত্রে কল্লে­াল গোষ্ঠীর লেখকদের সাফল্য ঈর্ষণীয়। এ সফলতার পেছনে কাজ করেছে বাস্তব অভিজ্ঞতা। তাঁরা শুধু মধ্যবিত্তের ছবি অবলোকন করে আঁকেন নি, তাঁদের নিজস্ব অভিজ্ঞতায় তা সিক্ত হয়েছে। এই ধারার শিল্পীদের মধ্যে প্রেমেন্দ্র মিত্র (১৯০৪-১৯৮৭) একজন অসাধারণ ছোটগল্প লিখিয়ে। ছোটগল্প লেখক হিসেবে ১৯৩৩-এ প্রেমেন্দ্র মিত্র সুপ্রতিষ্ঠিত। পঞ্চশর (১৯২৯), বেনামী বন্দর (১৯৩০), পুতুল ও প্রতিমা (১৯৩২) এবং মৃত্তিকা (১৯৩৫) গল্পগ্রন্থ ১৯৩৫ সালের মধ্যে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্পে মধ্যবিত্ত জীবনের সংকট বিশ্লেষণ প্রসঙ্গে প্রথমেই বলতে হয়, মধ্যবিত্তের যাপিত জীবনসংকটকে তিনি ব্যক্তি অভিজ্ঞতা ও সমাজমনস্ক-অনুসন্ধিৎসু মনের তুলিতে অঙ্কন করেছেন। আবেগরিক্ত মননে তিনি অসাধারণ অনেক ছোটগল্প লিখেছেন। তাঁর শিল্পীসত্তা সম্পর্কে বলা হয়েছেÑ

“প্লটের উপর দৃঢ়মুষ্টি অধিকার, বিশ্লে­ষণের অভ্রান্ত নৈপুণ্য, অনুচ্ছ্বসিত সংযত ভাষা মর্মভেদী দৃষ্টির সাহায্যে গল্প লেখক প্রেমেন্দ্র মিত্র জীবনের রহস্য সন্ধান করে ফিরেছেন। তাঁর সহযোগী বুদ্ধদেব বসুর মতো গল্পের মধ্যে নিজেকে প্রক্ষিপ্ত করেন না, অচিন্ত্যকুমার সেনগুপ্তের মতো আবেগের তরঙ্গশীর্ষে উপনীত হন না। ‘গোটা মানুষের মানে’ খুঁজেছেন, ভাঙাচোরা মানুষের ব্যবচ্ছেদ করেছেন।”৩

প্রেমেন্দ্র মিত্র একশত পঞ্চাশটিরও বেশি গল্প রচনা করেছেন। তাঁর প্রথম ছোটগল্প শুধু কেরাণী (চৈত্র ১৩৩০। এপ্রিল ১৯২৪) প্রবাসীতে প্রকাশিত হয়। তিনি মধ্যবিত্তের আর্থিকসংকটের প্রেক্ষাপটে অসাধারণ কিছু ছোটগল্প রচনা করেছেন। তবে তাঁর যথাযথ শক্তিমত্তার পরিচয় পাওয়া যায় দাম্পত্য জীবনের সংকট রূপায়ণে। প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্পে সমাজের বাস্তব রূপের চিত্রই ফুটে উঠে নি তাঁর কাক্সিক্ষত স্বপ্নচিত্রও তিনি অঙ্কন করেছেন।

বর্তমান অভিসন্দর্ভের মূল বিষয় প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্পে মধ্যবিত্তের জীবনসংকট। আমরা গবেষণার সুবিধার্থে বাংলা ছোটগল্পের বিকাশ ও কল্লে­ালের লেখক গোষ্ঠী : একটি সংক্ষিপ্ত রূপরেখা অংশে বাংলা ছোটগল্পের বিকাশ ও কল্লোল লেখকগোষ্ঠী সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেছি। বাংলাদেশের মধ্যবিত্ত শ্রেণি অংশে মধ্যবিত্তের সামাজিক বিকাশের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্প বিষয়-ভাবনা অংশে তাঁর ছোটগল্পের বিষয়-ভাবনা কিভাবে এসেছে তার সংক্ষিপ্ত আলোচনা আছে। প্রেমেন্দ্র মিত্রের ছোটগল্পে মধ্যবিত্তের জীবনসংকট নিরীক্ষণ অংশে মধ্যবিত্ত শ্রেণির যাপিত জীবনের সংকটের চিত্র সংক্ষিপ্তভাবে আলোচনার প্রয়াস চালানো হয়েছে। এ অংশে তাঁর সঙ্কলিত গল্পগ্রন্থের তিন খণ্ড থেকে আলোচনার বিষয়বস্তু বেছে নেয়া হয়েছে।

তথ্যনির্দেশ :

১। “সেই সত্য যা রচিবে তুমি

ঘটে যা সব সত্য নহে। কবি,তব মনোভূমি

রামের জনম স্থান,অযোধ্যার চেয়ে সত্য জেনো।”

হুমায়ুন আজাদ সম্পাদিত : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রধান কবিতা ,(ঢাকা ,১৯৯৭), পৃষ্ঠা :

২৯৮

২। অরুণকুমার মুখোপাধ্যায় : কালের পুত্তলিকা , (কলকাতা, ১৯৯৯), পৃষ্ঠা : ২৩

৩। প্রাগুক্ত, পৃষ্ঠা : ১৯৩

35 Shares