Home » আন্তর্জাতিক » ফ্রান্সে তরুণদের সাহসিকতায় ভবনে আগুন থেকে প্রাণে বাঁচলো একটি পরিবার

ফ্রান্সে তরুণদের সাহসিকতায় ভবনে আগুন থেকে প্রাণে বাঁচলো একটি পরিবার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ফ্রান্সের নটস নগরীতে একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে আগুন লাগলে একদল তরুণ নায়কোচিত ভাবে সেখান থেকে একটি পরিবারকে উদ্ধার করে।

বিবিসি জানায়, নটস নগরীর বুচেঁ জেলায় স্থানীয় সময় রোববার বিকালে একটি বহুতল ভবনের তিনতলায় আগুন লাগার ওই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, তরুণরা আগুন লাগা ভবনের পাশের একটি অংশের দেয়াল বেঁয়ে উপরে উঠে প্রথমে ওই ফ্ল্যাটে বসবাস করা এক দম্পতিকে বের হতে সাহায্য করে।

পরে ভবনের নিচে ম্যাট্রেস পেতে ওই দম্পতির ছয় মাস বয়সের শিশু সন্তানকে সেটির উপর নিরাপদে ছুঁড়ে মারে। শিশুটিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হলেও চিকিৎকরা বলেছেন, তার জীবননাশের আশঙ্কা নেই।

উদ্ধারকারী তরুণদের দলে থাকা তাহমিদ নামে এক তরুণ স্থানীয় একটি ওয়েবসাইটকে বলেন, ‘‘আগুন লাগায় ফ্ল্যাটটি থেকে বিশাল আকারের কুণ্ডলী পাকি য়ে যেভাবে কালো ধোঁয়া বের হচ্ছিলো তাতে আমাদের হাতে শিশুটিকে বাঁচাতে বারান্দা থেকে তাকে নিচে ছুঁড়ে ফেলা ছাড়া আর কোনো উপায় ছিল না।’’

আগুন পরে ভবনের ‍অন্য ফ্ল্যাটেও ছড়িয়ে পড়ে এবং ফায়ারফাইটাররা এসে ভবন থেকে আরো বেশ কয়েকজনকে উদ্ধার করেন।

কেনজা জেকা নামে এক তরুণী বলেন, ভবনে আগুন লাগার পর সেখানকার বাসিন্দারা ফায়ার সার্ভিসের আসার অপেক্ষায় করছিলেন। তখন তিনি তরুণদের জড়ো করে ওই পরিবারটিকে উদ্ধার করেন।

তিনি বলেন, ‘‘যারা দেয়াল বেঁয়ে উঠে পরিবারটিকে উদ্ধার করেছে তাদের মধ্যে আমার স্বামীয় আছেন।”

উদ্ধারকারী এই তরুণদের দলটির সবাই অভিবাসী। ফ্রান্স সরকার থেকে বৈধ কাগজপত্র নিয়ে তারা সেখানে বসবাস করছেন।

এর আগে ২০১৮ সালে মালি থেকে আসা একজন অভিবাসী প্যারিসে একটি ভবনের চতুর্থতলা থেকে বিপদজনকভাবে ঝুলতে থাকা ছোট্ট এক শিশুকে দ্রুতগতিতে দেয়াল বেয়ে উঠে উদ্ধার করে দারুণ প্রশংসিত হয়েছিলেন। পরে ফরাসি সরকার তাকে পুরস্কার হিসেবে দেশটির নাগরিকত্ব দেয় এবং সাহসিকতার জন্য প্রেসিডেন্ট মেডেল পান।

0 Shares