Home » আন্তর্জাতিক » ভাইকে বাঁচাতে পাঁচ বছর ধরে ২১ টাকাতেই দিন চালান দিদি!

ভাইকে বাঁচাতে পাঁচ বছর ধরে ২১ টাকাতেই দিন চালান দিদি!

  • বয়স তাঁর ২৪। আর ওজন মাত্র ২১.৫ কেজি। বিগত পাঁচ বছর ধরে মাত্র ২১ টাকাতেই নিজের খরচটা চালিয়ে নেন উও।
  • খাওয়া বলতে একটা পাউরুটির অর্ধেক না হলে এক থালা ভাতও অর্ধেক করে। তার সঙ্গে সমানতালে চলছে দুটো চাকরি। চলছে পড়াশোনাও। আর এই সব কিছুই ভাইয়ের দেখভালের জন্য।

 মৃত্যুর সঙ্গে যুঝতে যুঝতে দেওয়ালে পিঠ ঠেকার মতো অবস্থা। মা-বাবা সেই কবেই ছেড়ে চলে গিয়েছেন পরীদের দেশে। সেই তখন থেকেই তাঁর কাঁধে গুরুদায়িত্ব। ছোট্ট ভাইটাকে দেখভাল করতে হবে! ওর যত্ন করতে হবে, খেয়াল রাখতে হবে মা-বাবার মতোই! আর যে দিদি খেয়াল রাখবেন তিনি নিজে আবার অপুষ্টিতে আক্রান্ত। আর ভাই মানসিক রোগী।

কাকতালীয় ভাবে এ দেশে এই হাতেগোনা কয়েক দিন আগেই ভাইদের কপালে ফোঁটা দিলেন আদরের দিদিরা, বোনেরা। আর এমনই সময়ে চিনে এক যুবতীর খোঁজ মিলল। বয়স তাঁর ২৪। আর ওজন মাত্র ২১.৫ কেজি। নাম তাঁর উও হুয়াইয়ান। তাজ্জব হয়ে যাবার মতো বিষয়টি হল, বিগত পাঁচ বছর ধরে মাত্র ২১ টাকাতেই নিজের খরচটা চালিয়ে নেন উও। খাওয়া বলতে একটা পাউরুটির অর্ধেক না হলে এক থালা ভাতও অর্ধেক করে। তার সঙ্গে সমানতালে চলছে দুটো চাকরি। চলছে পড়াশোনাও।



গুইঝোউ প্রদেশে বাড়ি তাঁর। সেখানকার সরকারের তরফে উও এবং তাঁর ভাই দুজনের দেখভালের জন্য সর্বসাকুল্যে ৩,০১৪ টাকা দেওয়া হয়েছিল সেই কবে। আর যে টাকাটার সিকিভাগই চলে গিয়েছিল উওয়ের ভাইয়ের চিকিৎসার জন্য। যে দুই সংস্থায় উও চাকরি করেন, সেখান থেকে মাসে প্রায় ৬,০৩০ টাকা চলে আসে তাঁর। সেই টাকা থেকে নিজের জন্য ২০ টাকা করে আর বাকি সবটাই ভাইয়ের চিকিৎসার জন্য জমিয়ে রাখছেন উও।

এমনতর অসুস্থতার কারণে উওয়ের হৃদয় বলতে কিছুই নেই। চুল পড়ে যাচ্ছে দিনে দিনে। আর ঘুম উড়ে যাচ্ছে রাতের। তাঁর শরীরে আবার যোগ হয়েছে আর এক রোগ, যার পোশাকি নাম ইনসমনিয়া। চাইনিজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভেসে আসে এই ভাইবোনের খবরটি। সেখানে বহু মানুষ এগিয়ে এসেছেন এই ভাই-বোনের সহায়তায়। সকলে মিলে জোগাড় করে উও আর তার ভাইয়ের জন্য ডোনেশন হিসেবে প্রায় ৪৮ লক্ষ টাকা তুলে দিয়েছেন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় এত শোরগোল হুট করেই নজর কাড়ে সরকারেরও। আর তারপরই সরকারের তরফে এই ভাই-বোনের জন্য প্রায় ৩ লক্ষ টাকার অনুদান দেওয়া হয়। স্থানীয় এক রাজনৈতিক কর্মীর কথায়, ‘এই কেসটা আমরা দেখছি। অত সুন্দর দয়ালু একটা মেয়ে এবং তাঁর ভাইকে ভবিষ্যতে সুস্থ-সবল ভাবে এগিয়ে যেতে আরও সাহায্য করে যাব।

নিউটার্ন.কম/RJ

79 Shares