Home » আন্তর্জাতিক » ভারতের কাশ্মীরে ভৈষ্ণু দেবীর মন্দিরে পদদলিত হয়ে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু

ভারতের কাশ্মীরে ভৈষ্ণু দেবীর মন্দিরে পদদলিত হয়ে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতে হিন্দুদের একটি সুপরিচিত ধর্মীয় স্থানে পদদলিত হয়ে অন্তত ১২জন মারা গেছে। আহত হয়েছে আরও অনেকে।

ভারত শাসিত কাশ্মীরের কাত্রায় ভক্তরা মাতা ভৈষ্ণু দেবীর মন্দির দর্শন করার সময় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বলছে, মাতা ভৈষ্ণু দেবী মন্দিরে কিছু পূজারীর মধ্যে এক কথা-কাটাকাটি থেকে এই হুড়োহুড়ির সৃষ্টি হয়।

নতুন বছরের প্রথম দিনে একটি গুহার ভেতর অবস্থিত এই মন্দিরে হাজার হাজার লোকের সমাগম হয়েছিল। কোভিড মহামারির কারণে কর্তৃপক্ষ এখানে প্রতিদিন ২৫ হাজারের বেশি লোক আসতে পারবে না বলে সীমা বেঁধে দিয়েছিল।

কিন্তু খবরে জানা যাচ্ছে দর্শনার্থীদের জন্য বেঁধে দেয়া সংখ্যার দ্বিগুণ ভক্ত সেখানে জড়ো হয়েছিল।

শীর্ষ একজন পুলিশ কর্মকর্তা বলছেন, পদদলিত হয়ে আরও ১৬জন আহত হয়েছে। সবাইকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।বিবিসি

 

ঊর্ধ্বতন একজন সরকারি কর্মকর্তা এএফপি বার্তা সংস্থাকে বলেছেন নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। কারণ ইংরেজি নতুন বছর উপলক্ষে মন্দিরে পূণ্যার্থীর বিশাল ভিড় ছিল।

কাত্রা শহরের কাছে এই মন্দিরটি ভারতে হিন্দু পূণ্যার্থীদের জন্য খুবই পবিত্র একটি ধর্মীয় স্থান।

কিছু প্রত্যক্ষদর্শী দাবি করেছেন মন্দিরে ভিড় সামলানোর ক্ষেত্রে অব্যবস্থা ছিল। ভারতে ধর্মীয় জমায়েতে পদপিষ্ট হবার ঘটনা নতুন কিছু নয়। বিশাল জনসমাগমের সময় পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না নেয়াকে এধরনের দুর্ঘটনার জন্য দায়ী করা হয়ে থাকে।

দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে একটি তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

মোদী একটি টুইট বার্তায় বলেছেন: “মাতা ভৈষ্ণু দেবী ভাওয়ানের মন্দিরে পদদলিত হয়ে মানুষের মৃত্যুর ঘটনায় খুবই মর্মাহত হয়েছি। আহতরা দ্রুত আরোগ্য লাভ করুন এই কামনা করি।”

0 Shares