Home » জাতীয় » মুন্সীগঞ্জে পুলিশ-হেফাজত সংঘর্ষ, ওসিসহ আহত ২৫

মুন্সীগঞ্জে পুলিশ-হেফাজত সংঘর্ষ, ওসিসহ আহত ২৫

শহিদ শেখ, শ্রীনগর :
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় হেফাজতের নেতাকর্মিদের সঙ্গে
পুলিশের সংঘর্ষে ২৫ জন আহত হয়েছে। রবিবার (২৮ মার্চ) বেলা ১২ টার
দিকে উপজেলার বড় শিকারপুর ও শুলপুর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা
ঘটেছে।
আহতদের মধ্যে রয়েছে সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম
জালাল উদ্দিন, এসআই সেকেন্দার আলীসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য। এছাড়া

মধুপুর পীর আল্রামা আব্দুল ও হাফেজ মাওলানা বশির আহম্মেদসহ
হেফাজতের ১২ জন ও যুবলীগ-ছাত্রলীগের ৮জনসহ মোট ২৫ জন আহত
হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, সকালে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের

কুচিয়ামোড়া ও নিমতলা এলাকায় অবস্থান করে অবরোধের চেষ্টা করছিল
হেফাজতের নেতাকর্মিরা। এ সময় ঢাকা -মাওয়া মহসড়কে যান চলাচল বন্ধ
হয় প্রায় এক ঘণ্টা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক
রাখতে হেফাজত নেতাকর্মিদের সরিয়ে দেয়। এরপর নিকটস্থ বড়
বড়শিকারপুর ও শুলপুর এলাকায় হেফাজতের নেতাকর্মিরা উত্তেজিত হয়ে
পুলিশের ওপর হামলা চালায়। ইটপাটকেল ছুড়ে ও লাঠি দিয়ে আঘাত করে
আহত করে প্রথমে ওসি এসএম জালাল উদ্দিনকে এ সময় এসআই
সেকান্দরসহ আরো পুলিশ সদস্য আহত হয়। ওসিকে উন্নত চিকিৎসার
জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ
টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে এবং ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

সংঘর্ষচলাকালে
বেশকয়েকটি দোকানপাট ভাংচুর, ২ টি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে
দেয়া হয়। এছাড়া একটি অটোরিকশা ভাঙচুর করে নেতাকর্মিরা। এ
সময় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মিরা খবর পেয়ে প্রতিহত করতে গেলে
ত্রিমুখি সংঘর্ষ হয়।


এরপর দুপুর ২ টার দিকে মধুপুর ও তেঘরিয়া এলাকায় আওয়ামী লীগ,
যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা কর্মিদের বাড়িতে হেফাজতের লোকজন
অগ্নি সংযোগ করার খবর পাওয়া গেছে।

জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, সিরাজদিখান থানার ওসির
মাথা ফেটে গেছে। আরো কয়েকজন আহত হয়েছে পুলিশ সদস্য।
বিস্তারিত জেনে বলা যাবে বলে জানান তিনি।

0 Shares