Home » তথ্যপ্রযুক্তি » যমুনা ফিউচার পার্কে বাংলাদেশে প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর উদ্বোধন করল ইনফিনিক্স

যমুনা ফিউচার পার্কে বাংলাদেশে প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর উদ্বোধন করল ইনফিনিক্স

ঢাকা : বাংলাদেশে তুমুল জনপ্রিয় স্মার্টফোন কোম্পানি ইনফিনিক্স সম্প্রতি রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কে ব্র্যান্ডটির প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর চালু করেছে। নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ স্টোর শপিংমলের ইলেকট্রনিক্স ফ্লোরের সাউথ কোর্টে অবস্থিত। ফ্ল্যাগশিপ স্টোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইনফিনিক্স বাংলাদেশের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর তানজিন তিশা। আরো উপস্থিত ছিলেন চিফ অপারেটিং অফিসার শ্যামল কুমার সাহা, ট্রানসিওন হোল্ডিংস এর মার্কেটিং ডিরেক্টর ভ্যান নি, যমুনা গ্রুপের মার্কেটিং এন্ড সেলস ডিরেক্টর ড. মোঃ আলমগীর আলম, ইনফিনিক্স মার্কেটিং ম্যানেজার মেনগুয়ান ওয়াং, ন্যাশনাল সেলস ম্যানেজার মোঃ জাহিদুর রহমান, এসআই ম্যানেজার ইমরান খান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র ব্র্যান্ড ম্যানেজার ইফতেখার উদ্দিন সানি এবং পিআর ম্যানেজার তেহসিন মুসাভি। ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ও অতিথিরা ফিতা কেটে ফ্ল্যাটশিপ স্টোরটি উন্মোচন করেন; এছাড়া কেক কাটা এবং অন্যান্য আয়োজনও ছিল অনুষ্ঠানে। ইনফিনিক্সের স্টোর উদ্বোধন উপলক্ষে স্মার্টফোনপ্রেমীরা স্টোরে ভিড় জমান ও ব্র্যান্ডটির বিভিন্ন ডিভাইস সম্পর্কে নিজেদের আগ্রহ প্রকাশ করেন। এছাড়া, স্টোরটি উন্মোচন উপলক্ষে ইনফিনিক্সভক্তদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তারা অভিনেত্রী তানজিন তিশার সঙ্গে দেখা করেন ও সেলফি তোলেন। ইনফিনিক্সের নতুন এই যাত্রায় সঙ্গী হতে পেরে তারা খুবই রোমাঞ্চিত ছিলেন! ইনফিনিক্সের স্টোর চালু হওয়ার জমকালো এই শুরুতেই গ্রাহকদের বিভিন্ন আকর্ষণীয় গিফট ও উপহার প্রদান করা হয়।

 

স্টোর উদ্বোধন উপলক্ষে এই অফারে, স্মার্টফোন কিনলেই ক্রেতাদের জন্য ছিল ফ্রি ব্লু-টুথ নেকব্যান্ড, টি-শার্ট ইত্যাদি। এছাড়া, দর্শনার্থীদের আরো দেয়া হয় ক্যাপ, কি-রিং সহ নানা সামগ্রী। গ্রাহকরা শুধু ফ্ল্যাগশিপ এ স্টোর হতেই পেতে পারবেন তানজিন তিশার অটোগ্রাফসহ সীমিত পরিসরের বিভিন্ন উপহার। ইনফিনিক্স সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিত্যনতুন ও অভিনব সব উদ্ভাবনের মাধ্যমে প্রযুক্তিতে অবদান রেখে চলেছে। ব্র্যান্ডটি সম্প্রতি ১৮০ওয়াট ফাস্ট চার্জিং এবং থ্রি-ডি ভ্যাপর লিকুইড কুলিং টেকনোলজির মাধ্যমে টেকপ্রেমীদের মনোযোগ কেড়েছে। অ্যামোলেড ডিসপ্লে এবং ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসর সম্বলিত হেলিও জি৯৬ ও হেলিও জি৮৮ ভার্সনের ইনফিনিক্সের নোট ১২ সিরিজের স্মার্টফোন ঘিরে ইতোমধ্যে দেশের তরুণদের মধ্যে আগ্রহ তৈরি হয়েছে ও তারা স্মার্টফোনটি সম্পর্কে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে নিজেদের ইতিবাচক মতামত তুলে ধরছেন। ইনফিনিক্স সম্পর্কে: বিশ্বব্যাপী মোবাইলের ডিজাইন, তৈরি এবং বাজারজাতকরণে দ্রুত বর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স মোবাইল ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। নিজেদের ব্র্যান্ডের ডিভাইসগুলো ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছে দিতে বড়সড় পোর্টফোলিও নিয়ে কাজ করছে ইনফিনিক্স। জেড প্রজন্মকে লক্ষ্য করে ইনফিনিক্স নিপুণভাবে ডিজাইন করা স্মার্টফোনের নান্দনিক স্টাইল, ক্ষমতা এবং পারফরমেন্সসহ কাটিং-এইজ প্রযুক্তি উন্নয়নে কাজ করছে। ডিভাইসগুলোকে ট্রেন্ডি লুক দেয়া এবং প্রান্তিক ব্যবহারকারী কাছে সহজলভ্য করার ক্ষেত্রে একধাপ এগিয়ে আছে তারা। ‘ফিউচার ইজ নাউ’কে ধারণ করে, ইনফিনিক্স তরুণ গ্রাহকদের এমন সব সুবিধা হাতের নাগালে এনে দিতে চায় যাতে বাজারে থাকা প্রতিযোগীদের ভিড়ে বিশ্বকে তাদের সক্ষমতার কথা জানান দিতে পারে। ইনফিনিক্সের পোর্টফোলিতে থাকা পণ্যগুলো আফ্রিকা, লাতিন আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়াসহ বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশে পৌঁছে গেছে। ইনফিনিক্সের বর্তমান বাজার অভাবনীয় দ্রুত গতিতে বাড়ছে। ২০১৮-২০২০ সালে ১৬০% শতাংশ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। আকর্ষণীয় ডিজাইন ও শক্তিশালী ফিচারসহ ফ্ল্যাগশিপ-পর্যায়ের ডিভাইস তৈরি অব্যাহত রাখতে আগামী দিনগুলোতে বিশাল পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। ইনফিনিক্স সম্পর্কে আরও জানতে ভিজিট করুন : http://www.infinixmobility.com/bd/ -Press Release

0 Shares