Home » প্রধান খবর » রেল সেবায় নতুন দুয়ার : বেনাপোল টু মোংলা কমিউটার ট্রেন চলাচল শুরু

রেল সেবায় নতুন দুয়ার : বেনাপোল টু মোংলা কমিউটার ট্রেন চলাচল শুরু

 

এম এ রহিম, বেনাপোল যশোর :-

দীর্ঘ প্রতীক্ষারপর অবশেষে চালু হলো বেনাপোল মংলা কমিউটার ট্রেন। শনিবার সকাল ১০টা২মিনিটে ৬৮৭জন যাত্রী নিয়ে ট্রেনটি মংলার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে। এতে খুশি যাত্রীসহ বন্দরের সাথে সংশ্লিষ্টরা। স্বপ্নের যাত্রায় খুশি যাত্রীরা।

রেল সেবায় খুললো আরো একটি নতুন দুয়ার। ১জুন থেকে চালু হলো বেনাপোল বন্দর থেকে মংলায় রেল চলাচল। এই রুটের দূরত্ব ১৩৮ দশমিক ৬৪ কিলোমিটার।মাত্র ৮৫টাকা ভাড়ায় যাওয়া যাবে মংলায়। ৭১৬টি আসন রয়েছে ট্রেনটিতে ।


মঙ্গলবার বাদে সপ্তাহে ৬দিন চলবে মংলা কমিউটার ট্রেন।


এর ফলে উপকৃত হবে যাত্রী ও ব্যবসায়িরা। কমবে সময় বাঁচবে অর্থ ফলে নতুন এই রেল সেবায় খুশি যাত্রীরা সরকার ও রেল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান তারা ।
যাত্রী সোমিরা ও মোসুমী বলেন, তাদের কাছে সরাসরি যাত্রা ঈদ আনন্দের ন্যায়। স্থানীয়রা বলেন, স্বপ্নপূরণ হলো দু বন্দরের যাতায়াতকারীদের।
ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দেশ স্বাধীনের পর এই প্রথম চালু হলো বেনাপোল মংলা কমিউটার ট্রেন চলাচল। এতে উপকৃত হবেন ব্যবসায়ীরা। বাড়বে ব্যবসা সৃষ্টি হবে কর্মসংস্থানের। সরকারের এ সুদূরপ্রসারি উদ্যোগকে ধন্যবাদ জানান বন্দর ব্যবহারকারী ব্যবসায়িরা।


প্রতিদিন সকাল ৯টা১৫ মিনিটে বেনাপোল থেকে মংলার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে কমিউটার ট্রেনটি। এট্রেনটি খুলনা ফুলতলা হয়ে যাবে মোংলায়।এরপর মোংলা থেকে ট্রেনটি ছাড়বে দুপুর ১টায় এবং বেনাপোলে পৌঁছবে বিকেল সাড়ে ৪টায়। পরবর্তীতে রেল বাড়ানোর পরিকল্পনার কথা জানান স্টেশন মাস্টার সাইদুর রহমান।


গত ১ নভেম্বর খুলনা টু মোংলা পর্যন্ত নতুন রেল লাইনের পরীক্ষামূলক উদ্বোধন কর্ হয়। উদ্বোধনের প্রায় ৭ মাস পর এ রুটে ট্রেন চলাচল শুরু হলো। বেনাপোল থেকে ট্রেন ছাড়ার পর নাভারণ, ঝিকরগাছা, যশোর জংশন, রূপদিয়া, সিঙ্গিয়া, চেঙ্গুটিয়া, নওয়াপাড়া, বেজেরডাঙ্গা, ফুলতলা, আড়ংঘাটা, মোহাম্মদনগর, কাটাখালি, চুলকাটি বাজার, ভাগা ও দিগরাজ স্টেশনে যাত্রাবিরতির পর মোংলায় যাবে। যোগাযোগে ফলপ্রসূ এবং আর্থ সামাজিক ও যোগাযোগে ভূমিকা রাখবে বলে আশা করেন তিনি।


উদ্বোধনের দিনেই বিলম্বে ছেড়ে গেল বেনাপোল মোংলার সাথে চলাচলকারী বেতনা এক্সপ্রেস ট্রেন। নির্ধারিত সময় সকাল সোয়া ৯ টায় ছেড়ে যাবার কথা থাকলেও ৪৫ মিনিট বিলম্বে সকাল ১০ টায় ট্রেনটি বেনাপোল থেকে মোংলার উদ্দেশ্য রওনা দেয়।


২০০০ সালে বেনাপোল ও খুলনার মধ্যে চালু হয় বেতনা এক্সপ্রেস নামে একটি কমিউটার ট্রেন। প্রতিদিন ২ বেলা সকাল বিকাল ট্রেনটি খুলনা ও বেনাপোলের মধ্যে চলাচল করতো। সম্প্রতি খুলনা থেকে মোংলা পর্য্যন্ত নতুন রেল যোগাযোগ স্থাপিত হওয়ায় বেতনা এক্সপ্রেসের রুট বর্ধিত করে মোংলা পর্য্যন্ত চালানোর সিদ্ধান্ত নেয় রেল কর্তৃপক্ষ। উদ্বোধনের দিনে বেনাপোল রেল স্টেশনে কোন আনুষ্ঠানিকতা না থাকলেও প্রথম দিনেই স্টেশন ভর্তি যাত্রীদের ঠাসাঠাসি ছিল চোখে পড়ার মত।
মোংলাগামী বেতনা এক্সপ্রেস ট্রেনের পরিচালক আবু নাঈম জানান, বেতনা এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রতিদিন সকাল সোয়া ৯ টায় বেনাপোল থেকে মোংলা কমিউটার নামে ছেড়ে যাবে। মোংলা থেকে ফেরার সময় বেতনা এক্সপ্রেস নাম নিয়ে চলাচল করবে।


বেনাপোল রেলস্টেশনের ম্যানেজার সাইদুর রহমান আরো জানান, বেতনা এক্সপ্রেস প্রতিদিন ২ বেলা খুলনা বেনাপোলের মধ্যে চলাচল করতো। মোংলার সাথে সংযুক্তির পর আজ থেকে সকালে ছেড়ে যাওয়া প্রথম ট্রেনটি খুলনার সাথে যাত্রা সীমিত করে ফুলতলা হয়ে মোংলা যাবে। মোংলা থেকে ১২-৩০ মিনিটে ছেড়ে ৪ টায় বেনাপোল পৌঁছানোর পর বিকাল ৫ টায় বেনাপোল ছেড়ে খুলনার উদ্দেশ্য রওনা দেবে।

-প্রেস রিলিজ

0 Shares