Home » ধর্ম-কর্ম » লাইলাতুল (শবে)ক্বদর : শেষ দশকের বেজোড় রাত -এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ

লাইলাতুল (শবে)ক্বদর : শেষ দশকের বেজোড় রাত -এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ

 

লাইলাতুল ক্বদর বা শবে ক্বদর। রমজানের শেষ দশকের একটি রাত। যে রাতের মর্যাদা ঘোষণায় বলা হয়েছে যে, হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ। যে কেউ এ রাতে একটি আমল করবে তা হাজার মাসের আমল হিসেবে পরিগণিত হবে।

শবে ক্বদর নিয়ে আমাদের একটি ভুল ধারণা ২৭ রমজানের রাতে আমরা শবে ক্বদরের রাত হিসেবে অনেক নফল ইবাদত করে থাকি। অথচ হাদিসে দেখুন নবীজি ﷺ বলেছেন
রমজানের শেষ দশকের বেজোড় রাতে লাইলাতুল কদর অনুসন্ধান করতে।

সেই প্রেক্ষিতে মুসলিম উম্মাহর উচিত, রমজানের শেষ দশকের ২১, ২৩, ২৫, ২৭ ও ২৯ তারিখ রাতে লাইলাতুল কদর তালাশ করা। অর্থাৎ ২০,২২,২৪,২৬,২৮ এই দিনগুলোর রমজানের রাতে নফল ইবাদত করবেন। এই রাতগুলোতে কষ্ট হলেও জেগে থেকে ইবাদত বাড়িয়ে করার চেষ্টা করুন। ইনশাআল্লাহ এর মাঝে ক্বদরের রাত পেয়ে যাবেন। যদি শেষ দশটি দিনই কোমড় বেঁধে লেগে যান তাহলে আরও ভালো।

এই রাতে কি কি ইবাদত করবেন বা কি আমল করা যায়ঃ-
১) কুরআন তিলাওয়াত করাঃ আপনার সাধ্য অনুযায়ী যতটুকু তিলাওয়াত করতে পারেন।

২) নফল নামাযঃ নফল নামায আদায় করুন। আপনার সাধ্য অনুযায়ী।

৩) ইস্তেগফার ও দরুদপাঠঃ বেশি বেশি ইস্তেগফার ও দরুদপাঠ করুন। দরুদে ইব্রাহীম না হয় ছোট কোন দরুদ পাঠ করুন।

৪) যিকির করাঃ যিকিরগুলো সম্পর্কে আমরা অনেকে অবগত। তাই যিকিরগুলো আপনার সাধ্য অনুযায়ী করুন।

৫) দু’আ করাঃ দু’আ কবুলের একটি বিশেষ রাত। হৃদয় উজার করে আপনার রবের কাছে যা চাওয়ার (অবশ্যই বৈধ চাওয়া) চেয়ে নিন। দু’আয় সকল মুসলিম উম্মাহ ভাই বোন মাযলুম ভাই বোনদের স্মরণ করতে ভুলবেন না।

সেই সাথে অল্প হলেও সাদকাহ করুন, দৈনিন্দন আমলগুলোও করতে ভুলবেন না।

লাইলাতুল ক্বদরের রাতটিকে চিনবেন কি করে? এই রাতটি চেনার কিছু আলামত হাদীসে পাওয়া যায়। তা নিন্মরুপঃ

(১) রাতটি গভীর অন্ধকারে ছেয়ে যাবে না।
(২) নাতিশীতোষ্ণ হবে। অর্থাৎ গরম বা শীতের তীব্রতা থাকবে না।
(৩) মৃদুমন্দ বাতাস প্রবাহিত হতে থাকবে।
(৪) সে রাতে ইবাদত করে মানুষ অপেক্ষাকৃত অধিক তৃপ্তিবোধ করবে।
(৫) কোন ঈমানদার ব্যক্তিকে আল্লাহ স্বপ্নে হয়তো তা জানিয়েও দিতে পারেন।
(৬) ঐ রাতে বৃষ্টি বর্ষণ হতে পারে।
(৭) সকালে হালকা আলোকরশ্মিসহ সূর্যোদয় হবে। যা হবে পূর্ণিমার চাঁদের মত।
[সূত্র-সহীহ ইবনু খুযাইমাহঃ ২১৯০, সহীহ বুখারীঃ ২০২১, সহীহ মুসলিমঃ ৭৬২]

শবে ক্বদরের দু’আঃ-
উম্মুল মুমিনীন আয়িশাহ (রদ্বিয়াল্লাহু আনহা) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, ইয়া রাসূলুল্লাহ ﷺ , আমি যদি জানতে পারি যে, কোন রাতটি লাইলাতুল ক্বদর তাহলে তখন কোন দুআ করবো? তখন তিনি বললেন, তুমি বলবেঃ

اللَّهمَّ إنَّك عفُوٌّ تُحِبُّ العفْوَ، فاعْفُ عنِّي

(আল্লাহুম্মা ইন্নাকা ‘আফুউন, তু’হিব্বুল ‘আফওয়া, ফা’ফু ‘আন্নী)
অর্থঃ “হে আল্লাহ, তুমি ক্ষমাশীল, ক্ষমা করতে তুমি ভালোবাসো, সুতরাং আমাকে ক্ষমা করে দাও।”

সূত্র-সুনানে তিরমিযী, হাঃ ৩৭৬০ ; সুনানে ইবন মাজাহ, হাঃ ৩৬৫০। হাদীসটি সহীহ।
এই দু’আটি বেশি বেশি পড়বেন।

আল্লাহ তুমি সকলকে তাওফিক দান করো, যেনো এই শেষ দশটি দিনের অর্জন আমাদের জীবনের শ্রেষ্ঠ অর্জন যেন হয়

0 Shares