Home » জাতীয় » প্রবাসীর মৃত্যু ইলিশ নিয়ে পালাতে গিয়ে

প্রবাসীর মৃত্যু ইলিশ নিয়ে পালাতে গিয়ে

 

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় মো. বাবুল হাওলাদার (৫০) নামে এক সৌদিপ্রবাসী মা ইলিশ নিয়ে পালানের সময় স্থানীয়দের তাড়া খেয়ে নালায় পড়ে মারা গেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার রাতে উপজেলার পশ্চিম বড়ইয়ার এলাকার ফকির বাড়ির বাগানের নালায় পড়ে তাঁর মৃত্যু হয়।

নিহত বাবুল হাওলাদারের বাড়ি উপজেলার বড়ইয়া ইউনিয়নের চর উত্তমপুর এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে নিধন করা দুই বস্তা মা ইলিশ নিয়ে যাওয়া হচ্ছে—এমন তথ্যের ভিত্তিতে বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত বড়ইয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় রাজাপুর উপজেলা প্রশাসন। রাজাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহাগ হাওলাদারের নেতৃত্বে সড়কে সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের খোঁজে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের সংবাদ পেয়ে সন্ধ্যায় ওই এলাকার অতি উৎসাহী কিছু ব্যক্তির তাড়া খেয়ে মা ইলিশ নিয়ে অন্ধকারে পালাতে গিয়ে কলাকোপা এলাকায় নালায় পড়ে বাবুল নিখোঁজ হন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাত ১০টার দিকে স্বজনেরা একটি গভীর নালার মধ্যে মৃত বাবুলকে দেখে পুলিশ খবর দেয়। রাজাপুর থানা-পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

বাবুলের ভগ্নিপতি মিরাজ মিয়া বলেন, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাবুল বড়ইয়ার কাচারিবাড়ি এলাকা থেকে মা ইলিশ কিনে মোটরসাইকেলে করে নিজ বাড়িতে রওনা হন। পথে মা ইলিশ নিধন প্রতিরোধের নামে উৎসাহী জনতার একটি সংঘবদ্ধ দলের তাড়া খেয়ে মাছসহ পালাতে যান বাবুল।

ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (রাজাপুর-কাঠালিয়া সার্কেল) মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, বাবুলের মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। লাশ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। তদন্ত করে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজাপুরের ইউএনও সোহাগ হাওলাদার বলেন, অভিযানে কাউকে ধাওয়া করা হয়নি। দুই বস্তা ইলিশ নদী থেকে ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে—এমন তথ্যের ভিত্তিতে সড়কে দাঁড়িয়ে তল্লাশি করা হয়।

নিউটার্ন.কম/AR

7 Shares